বিউটি প্লাস ক্যামেরা ব্যবহার পদ্বতি এবং রিভিউ

Beauty Plus camera

বিউটি প্লাস ক্যামেরা এমন একটা ক্যামেরা যার মাধ্যমে আপনি আপনার ইমেজকে একেবারে ডি এস এল আর এ ক্যামেরাতে তোলা ছবির মতো করে নিতে পারবে। আজ আমরা বিউটি প্লাস ক্যামেরা ব্যবহার এর পদ্বতি আর এর উপর রিভিউ দিবো।

সবাই চায় তাদের তোলা ছবি সুন্দর দেখাক ঠিক যেমন ডি এস এল আর এ তোলা। কিন্তু ফোনের সাধারণ ক্যামেরা এতটাও ভালো থাকে না যে এতে তোলা ছবিগুলো এতটা ভালো হবে। তবে এখনকার সময়ে বিভিন্ন অ্যাপ ডেবোলপাররা ডেবোলপ করে চলেছে আসাধারণ সব অ্যাপ।

আর সেক্ষেত্রে চাহিদা বুঝে আনেকটা নিজেদের প্রয়োজনে তরুন ডেবোলপারা তৈরি করে চলেছে নিজেদের কাজ গুলো সহজ আর আকর্ষনিয় করে তুলার বিভিন্ন অ্যাপ।

বিউটি অ্যাপ গুলো তার মধ্যেই একটি জনপ্রিয় ডেবোলপমেন্ট যা এখনকার তরুন সমাজের মাঝে অনেকে বেশি পছন্দের। এন্ড্রোয়েড মোবাইল আছে আথচো একটা ভালো বিউটি ক্যামেরা নেই তা আজকাল নেই বললেই চলে।

কারণ সবার জন্য একটা ভালো ক্যেমেরা কেনাটা এতটা সহজ বিষয় না। একটা এন্ড্রোয়েড মোবাইল মাত্র পাচ হাজার টাকা হলেই বর্তমানে কেনা যায় আর একটা সাধারণ ক্যামেরা কিনতেগেলেও কমে সাত থেকে আট হাজার টাকার মতো একটা এমাউন্ট এর প্রয়োজন হয়।

গুগল প্লে স্টোরে বিউটি ক্যামেরা লিখে সার্চ করলে আপনার হাজার হাজার বিউটি ক্যামেরা পেয়ে যাবেন। তবে সেগুলোর সবগুলোই যে ভালো হবে তা কিন্তু না। কিছু অ্যাপ আপনার চাহিদা মোতাবেন নাও হতে পারে।

তাই আজ আমরা বিউটি ক্যামেরা অ্যাপগুলো মধ্যে থেকে একটি অ্যাপ বিউটি প্লাস ক্যামেরা নিয়ে আলেচনা করবো আর এর ফিচার গুলো এর ব্যবহার এ ব্যবহার এর পর ব্যবহার কারিদের মন্তব্য এর নিজেদের রিভিউ তুলে ধরবো। বিউটি প্লাস ক্যামেরা অ্যাপটি সম্পর্কে জানতে লেখাটি পড়ুন।

বিউটি প্লাস ক্যামেরা যে ভাবে নিয়ে নিবেন

বিউটি প্লাস ক্যামেরাটি নিজের এন্ড্রোয়েড ডিভাইসটিটে নিয়ে নেওয়ার জন্য আপনি খুব সহজেই নিচের বাটনটিতে ক্লিক করে আপনি চলে যাবেন ইন্সটল অপশনে।

বিউটিপ্লাস ক্যামেরা কেটাগরিবিউটিপ্লাস ক্যামেরা রিভিউ
ডাউনলোড সংখ্যা100M+
রিভিউ সংখ্যা 4M+
ইন অ্যাপ পুশ3+

বাটনটিতে ক্লিক করারর সাথে সাথে আপনি চলে যাবেন গুগলের ইন্সটল পেইজে। সেখান থেকে আপনি এক কোনায় লেখা ইন্সটল বাটনে ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার ফোনে অ্যাপটি ডাউনলোড শুরু হয়ে যাবে।

ইন্সটল শেষে আপনার ফোনে অ্যাপটি চলে আসবে। অ্যাপটি আপেন করে আপনি এর ইন্টো গুলো একে একে কেটে দিন। বিউটি প্লাস ক্যামেরাটি আপনি আপনার ফোনে থাকা সাধারণ ক্যামেরার মতোই ব্যবাহার করতে পারবে।

বিউটি প্লাস ক্যামেরাতে ছবি যে ভাবে এডিট করবেন

বিউটিপ্লাস ক্যামেরাটি আপনার মোবাইলে ডাউনলোড করার পর অপেন করে নিন। আপেন করে আপনি একেবারে নিচে তিনটি অপশন দেখতে পাবেন। বুঝার সুবিধার্থে আমি তিনটি আপশন কে তিনটি আলাদা আলাদা রং দিয়ে চিহ্নিত করে দিলাম।

প্রথম আপশনটি যার নাম ফটো এডিটর আর তার ‍পরেরটি যা দেখতে ক্যামেরার মতো এবং একেবারে ডানেরটি যার নাম মিনি অ্যাপস এ তিনটির মধ্যে ফটো এডিপর আপশনটিতে আপনি আপনার গেলারির থেকে ছবি বাছাই করে এনে এডিট করতে পারবেন।

পরের আপশনটি যা দেখতে ক্যামেরার মতো তার দ্বারা আপনি ছবি তুলে বা তুলার আগে বিভিন্ন এফেক্ট এনে ছবি তুলতে পারবেন।

শেষের আপশনটি যার নাম মিনি অ্যাপস এর দ্বারা আপনি কিছু এক্সট্রা ফেসিলিটি নিয়ে নিতে পারবেন। তবে এতে আপনাতে নিজের পকেটের টাকা খরচ করতে হতে পারে।

বিউটি প্লাস ক্যামেরার এফেক্ট গুলো

বিউটি প্লাস ক্যামেরাতে আপনি বিভিন্ন ধরণের এফেক্ট পেয়ে যাবেন আপনার ছবিকে আরও আসাধারণ আর ভিন্ন দেখেতে তৈরি করে তুলার জন্য। আমি এর মধ্যে থাকা কিছু এফেক্ট আর এডিট বারের নাম আর তাদের তালিকায় থাকা ছোট ছোট আপশন গুলোর নামও বলবো।

রিটাচ (Retouch)

  • অটো (Auto)
  • এইটডি রিটাচ (HD retouch)
  • মেকআপ (Makeup)
  • স্মুথ (Smooth)
  • কাক্লেয়ার (concealer)
  • আলিনেস (Oiliness)
  • স্লিম (Slim)
  • টোন (Tone)
  • রিসেপ (Reshape)
  • হেড সাইজ (Head size)
  • থ্রিডি হাইলাইটিং (3D Highlighting)
  • ফাম (Firm)
  • রিসাইজ (Resize)
  • একেন (Acne)
  • কনটিয়ার (Contour)
  • এফাইনার (Afinar)
  • বডিটারনার (Body tuner)
  • ডার্ক সার্কেল (Bark circle)
  • ব্রাইটেন (Brighten)
  • টিথ করেকশন (Teeth correction)
  • ওয়াইটেন (Whiten)

এডিট (Edit)

  • ক্রপ (Crope)
  • এনহেন্স (Enhance)
  • এডজাস্ট (Adjust)
  • রিমুভার (Remover)
  • ব্লর (Blur)
  • মুজাইক (Mosaic)
  • ডিসপার্স (Disperse)

ফিল্টার (Filter)

সাধারণ ক্যামেরা ফিল্টারে সচরাচর যা থাকে এখানেও তাই।

স্টিকারস (Stickers)

স্কিটারে আছে অসাধারণ সব সব স্টিকার। কিছু প্রিমিয়াম যে গুলো ব্যবহার করতে হলে আপনাকে তাদের প্লেন কিনত হবে।

ডোডল পেন (Doodle pen)

ডোডল পেন হলো আনেকটা আমরা যেমন রং এর ব্রাশ ব্যবহার করে ছবির উপর আকি এমন। তবে এ পেনটির সাহায্যে আপনি রং ছারাও আরও আনেক ধরণের ভিন্ন ডিজাইন বানাতে পারবেন আপনার ছবিতে।

টেক্সট (Text)

টেক্সট লেখার সময় আপনি আনেক ফন্ট ফ্রিতে পেয়ে যাবেন তাছারা ফ্রি টেম্পেলেট তো আছেই।

ব্রেগাউন্ড (Backgrond)

আপনি আপনার ছবিকে আরও আসাধারণ করে তুলাল জন্য নিজের পছন্দের যে কোনো একটি ব্রেগাউন্ড বাছাই করে নিতে পারবেন।

যে ভাবে ছবি তুলবে

ছবি তুলতে কে না পারে তবুও আমি দেখিয়ে দিলাম। নিচের স্কিনসটটা দেখুন এখানে তিনটি আপশন আছে।

একটি ভিডিও এবং আরেকটি সুট আর আন্যটি স্টডিও। আপনি যুদি ছবি তুলতে চান তবে আপনাকে সুট বাছাই করতে হবে আর ভিডিও করেতে চাইলে ভিডিও।

এখানে রাখা স্টডিও একটু বেশী ফিচার নিয়ে আপনার ভিডিও মেইকিংকে আরও আন্যরকম করে তুলার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।

আনলাইন থেকে ইনকাম করতে চাচ্ছেন

আপনি যুদি আপনার লেখা পড়ার পাশাপাশি ইনকাম করে আগ্রহি হয়ে থাকেন তবে আপনি আমাদের এ লেখাটি পড়ে দেখতে পারেন। আমাদের এ লেখাটিতে আমরা লেখেছি আনলাইন থেকে ইনকাম করা সম্পর্কে।

আমরা কোনো এমন আনলাইন ইনকামের পথের কথা বলিনা যা করার জন্য আপনাকে রেফারের পর রেফার করতে হবে বা অ্যাপের পর অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে।

এটা একটা প্রফেশনাল কাজ। যা আপনি আপনার জীবনের শেষ পযন্ত করে যেতে পারবেন। আর আপনার পেমেন্ট নিয়ে চিন্তা করতে হবে না। আপনি আপনার পেমেন্ট আপনার মাস্টার কার্ডে বা ব্যাংক একাউন্টে নিয়ে নিতে পারবেন।

এ কাজ টির নাম হলো ফ্রিল্যান্সিং আর এটা সম্পর্কে আরও জানেতে হলে আপনি আমাদের এ লেখাটি পড়ে দেখে জেনে নিতে পারবেন।

এছারাও আমাদের সাইটে আমরা আরও লেখে রেখেছি ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য সেরা মার্কেটপ্লেস গুলো নিয়ে যে গুলোতে আপনি একজন বিগেইনার হিসেবে কাজ শুরু করে দিতে পারবেন।

এছারাও যারা ফ্রিল্যান্সিং কোর্স খুজছেন তাদের জন্য আছে সেরা ফ্রিল্যান্সিং প্রভাইডিং সাইটের তালিকা। আর কোন কোর্সএ কী থাকছে তার বিস্তারিত।

যারা বই পড়তে পছন্দ করেন আর বই পড়েই শখতে চাচ্ছেন তাদের জন্য আছে ফ্রিল্যান্সিং শেখার জন্য বই। আবার আপনারা যারা ইউটিউবার হতে চান তদের জন্য রয়েছে ফ্রি কিন্তু প্রফেশনালদের পছন্দের আর কোনো প্রকার ওয়াটারমার্কের ঝামেলা ছারা পারফেক্ট ভিডিও এডিটিং সফটওয়্যারের তালিক।

আর পড়ার জন্য আমাদের সাইটটি ঘুরে আসাতে পারেন। আমাদের সাইট সাজানো হয়েছে আসাধারণ সব প্রয়োজনিয় অ্যাপ, ওয়েবসাইট আর সাজেশন নিয়ে।

Featured