গুগল থেকে ইনকাম করার ৫টি জনপ্রিয় পদ্বতি

Make money

ইনকামের মাধ্যম খুজছেন গুগলে? লেখছেন অনলাইন ইনকাম মাধ্যম। গুগলে অন্য গুলো না সার্চ করে গুগলকেই নিজের ইনকাম সোর্স বানিয়ে নিন। আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করবো গুগলের নিজের অফার করা ৬টি সফল জনপ্রিয় আর একটা বিশাল সময় ধরে চলে আসা মাধ্যম গুলোর সম্পর্কে।

লেখাটি মনযোগ দিয়ে পড়ুন। কারন হতে পারে এলেখাটি পড়ে আপনি আপনার অনলাইন ইনকাম জগতে ব্যার্থ থেকে সফল একজনে পরিবর্তন করে নিতে পারবেন।

শুরুতেই একটা কথা বলে নেই গুগল থেকে আর যে কোনো প্রগ্যাম থেকেই আপনি ইনকাম করুন না কেন আপনাকে অবশ্যই ধৈয্য শব্দটার সাথে ভালো বোঝা পড়া থাকতে হবে। নয়তো আপনার পক্ষে যুদি কেই আপনার হয়ে কাজও করে দেয় তবু্ও আপনার কোনো ইনকাম হবে না।

তবে চলুন আমরা আমাদের আজকে কথা শুরু করে দেই। শুরুতেই আমরা জেনে নেই আমাদে গুগলের প্রগ্যামটা যার মাধমে গুগল আপমাদের ইনকাম নিশ্চিত করে থাকে।

গুগল ইনকাম প্রগ্যাম

আপনি কি জানেন গুগল থেকে আপনার ইনকাম কী ভাবে হয় আর গুগল এমন কী করে যে আপনার ছোট ছোট কাজের জন্য আপনাকে টাকা দেয় বা একটা ভালো ইনকাম দেয়।

আসলে গুগল এডভারটাইজের মাধ্যমে এটা করে থাকে। বিভিন্ন এডভারটাইজার রা যারা নিজেদের বিজ্ঞাপন প্রচার করতে চায় যাতে করে তাদের প্রডাক্ট মানুষ ক্রয় করে বা চিনে গুগল তাদের এ কাজে নিজের প্রগ্যাম দিয়ে তাদের সাহায্য করে আর এর বিনিময়ে গুগল তাদের থেকে অর্থ পায়।

আর এটা করার জন্য গুগল তৈরি করে রেখেছে আসাধারণ সব প্রগ্যাম। যার মাধ্যমে যেমন গুগলের ইনকাম হয় ঠিক তেমনি যারা এ বিজ্ঞাপন গুলো সো করায় তাদেরও ইনকাম হয়।

এখন গুগলে এ প্রগ্যমে দুই দরনের পাটনার থাকে। একটি হলো অ্যাডভারটাইজার আন্যটি হলো পাবলিশার। অ্যাডভারটাইজার হলো তারা যারা বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকে গুগলকে সেই অ্যাডভারটাইজারদের পণ্য বিজ্ঞাপন প্রমোট করারনোর জন্য বা ক্রেতাদের চোখের সামনে নিয়ে দেওয়ার জন্য।

আর পাবলিশার হলো তারা যাদের কন্টেন্ট এর মাধ্যমে এ বিজ্ঞাপন গুলো ক্রেতাদের চখের সামনে আনা হয় বা তুলে ধারা হয়।

আরও ভালোভাবে বোঝানোর জন্য বলা যায়, আপনি যখন কোনো ওয়েব সাইটে যান তখন আনি কিছু পণ্যের চিত্র দেখতে পান বা কিছু ভিডিও যা ওয়েবসাইটের শুরুর দিকে মাঝখানে বা নিচে চলতে দেখা যায় সেটিই হলো বিজ্ঞাপন যা গুগল সো করায়।

ইউটিউব এর ক্ষেত্র ভিডিও চালু করলে আপনার সামনে অনেক সময় বিজ্ঞাপন চলে আসে বা ভিডিও দেখতে দেখতে মাঝখানে বিজ্ঞা পন চলে আসে সেটাই হলো গুগলের সো করা বিজ্ঞাপন।

এবার চলুন আমরা আমাদের মূল বিষয়ের দিকে অগ্রসর হই।

জনপ্রিয় ৬টি পদ্বতি

প্রথমেই আমি গুগলের যে প্রগ্যামটির কথা বলব সেটি হলো গুগল আডসেন্স। অনেকেই নামটির সাথে পরিচিত হতে পারেন আবার নাও হতে পারেন।

1. গুগল অ্যাডসেন্স দিয়ে

গুগল অ্যাডসেন্স হলো এমন একটি প্রগ্যাম যার মাধ্যমে আপনি খুব সহজে আপনার কন্টেন্ট দিয়ে একেবারে ফ্রিতে ইনকাম করে নিতে পারবেন।

আর এর জন্য আপনাকে কোনো টাকা খরচ করতে হবে না।

কন্টেন্ট যা গুগল মনিটাইজেশন করে ক্রিয়েটর দের ইনকাম করতে সাহায্য করে তা দুই ধরনেল হতে পারে। একটি ভিডিও অন্যটি হলো আরটিকেল। ভিডিও কন্টেন্ট ইউটিউব এর ক্ষেত্রে আর আরর্টিকেল ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে।

2. ইউটিউব দিয়ে

ইউটিউব থেকে আপনি খুব সহজেই ইনকাম করে নিতে পারবেন আপনার চ্যানেরটি গুগল অ্যাডসেন্সে এড করে।

ইউটিউব থেকে ইনকাম করার জন্য আপনাকে সবকিছুর প্রথমে ইউটিউবে একাউন্ট করতে হবে। আর তার পর নিজের চ্যানেলের একটু পরিবর্ত আনতে হবে।

আর তার জন্য আপনার চ্যানেলে 800x800px (a 1:1 aspect ratio) এর একটি ইমেইজ আর কবার ফটোর জায়গায় 2560px wide এবং 1440px tall এর একটি ফটো আপলোড করবেন।

এখানে একটি কথা না বললেই নয় ইউটিইব আপনার প্রফাইল পিকচারকে অটোমেটিক কেটে 98x98px পিকজেলে সো করবে।

ইউটিউব থেকে আপনি যে শুধুু মনিটাইজেশন করিয়ে ইনকাম করে নিতে পারবেন তা কিন্তু নয়। আপনি এছারাও চাইলে স্পন্সারশীপ দ্বারা বা প্রমট করিয়ে বা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আপনি ইনকাম করে নিতে পারবেন।

বা আপনি আপানা নিজিস্ব সার্ভিস গুলো বিক্রি করে গুগল অ্যাডসেন্স ছারারও ইনকাম করে নিতে পারবেন।

ওয়েবসাইট এবং ইউটিউবের ইনকাম স্কেল

অ্যাডসেন্সে থেকে ইনকার করার সময় ইউটিউবারদের জন্য গুগল ৫১% আর ওয়েবসাইট ওনারদের জন্য গুগল ৬৮% ভাগ দেয় আর বাকিটা গুগল নিজের জন্য রেখে দেয়। যার মানে আপনি ওয়েবসাইটের ক্ষেত্রে মোট ইনকাম যুদি করে থাকেন ১০০ ডলার তো আপনি পাবেন ৬৮ ডলার আর ইউটিউব এর ক্ষেতে পাবেন ৫১ ডলার।

3. ব্লগগার দিয়ে

ব্লগার গুগলেরি একটি পণ্য। ইউটিউবের মতো এর প্রগ্যামটিও একেবারেই সেম। আগে ফ্রি ব্লগার দিয়ে ইনকাম করা যেত না তবে এখন গুগল এটি এভেলাভল করে দিয়েছে। আর তা আপনি একটি ফ্রি ব্লগসািইট দেখলেই বুঝে যাবেন।

উপরে যে ক্সিনসর্টটি আমি দিয়েছি সেটি একটি ফ্রি ব্লগার একাউন্টের আর্নর্নিং অপশনের ডিটেইল।

এর জন্য আপনাকে তেমন কিছু করত হবে না। আপনি আপনার পিসি বা ল্যাপ্টপ থেকে Blogger লেখে সার্চ করলেই চলে আসবে ব্লগার।

সেখানে গিয়ে যা যা চায় তা দিয়ে সাইন আপ করে নিয়ে কিছু সেটিং সেট করে আপনি আপনার পোস্টিং শুরু করতে পারবেন। আপর আপনার কন্টেন্ট কোয়ালিটি ভালো হলে আর আপনার কোনো কন্টেন্ট গুগলে রেংক করে গেলে আপনি এডসেন্সের সাতে আপনার ব্লাগার এড করে ভালো ইনকাম করে নিতে পারবেণ।

অবশ্য আপনাকে ব্লগার থেকে ইনকাম করতে গেলে অকশ্যই আপনার কাস্টম রোবট টেক্সট, গুগল এনালাইটিক ট্রেকিং আইডি, গুগল কনসোলার এড, এবং সাইট ম্যাপ সাবমিট করে নিতে হবে।

আর আপনি যুদি এসব না করতে পারেন বা আগে কোনো সময় শোনোনি এমন হলে আপনি মাইবিডিব্রগ ডট কম সাইটটি ঘুরে আসে পারবেন আর এর সম্পর্কে সম্পূর্ণ ধারনা নিয়ে আসতে পারবেন।

আর তাছারা আপনি এটাও জানতে পারবেন গুগল অ্যাডসেন্সএ কী ভাবে কোনো ভুল না করে নিজের সঠিক ডিটেইল এড করবেন আর কী কী ডিটেইল লাগতে পারে।

আর আপনার একাউন্টে ১০০ ডলার হলে আপনার পেমেন্ট আপনার ব্যাংকে আটোমেটিক পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

4. অ্যাডমোব দিয়ে

গুগল অ্যাডমোব হলো ডেবোলপারদের জন্য। বিষেশ করে যারা অ্যাপ ডেবোলপ করে থাকে তাদের জন্য একটা ইনকামের পথ এই এডমোব।

অ্যাডমোবের সাহায্যে অ্যাপ মনিটাইজেশন করিয়ে একজন অ্যাপ ডেবোলপার গুগলথেকে ইনকাম করে নিতে পারে। তবে আরও কিছু বিষয় আছে যে গুলো দিয়ে আরও ভালো ইনকাম করে নেওয়া যায় গুগল থেকে আপনারা সে বিষয় গুলো জানতে চাইলে আমাদের এ লেখাটি পড়ে দেথে নিতে পারেন।

অ্যাডমোব থেকে ইনকাম করতে হলো আপনাকে আগে একটি অ্যাপ তৈরি করে নিতে হবে যা আনেক ধরনের ভালো ফিচার অফার করে।

যে ফিচার গুলো বর্তমানের ইউজাররা পছন্দ করে। আর ফিচার গুলো এমন হতে হবে যার এডভান্স ফিচার গুলো একজন ইউজার কিনে ব্যবহার করতে আগ্রহি থাকে।

তার পর আপনাকে গুগল অ্যাডমোবে একটি একাউন্ট করতে হবে। একাউন্ট করতে আপনাকে তেমন কিছু করতে হবে না। আপনি শুধু আপনার জিমেইল দিয়ে লগইন করবেন। আর আপনার থেকে চাওয়া তাদের ডিটেইল গুলো দিয়ে দিবেন।

মনে রাখবেন সব আপানি আপনার জাতিয় পরিচয় পত্র থেকে দিবেন আর কোনো প্রকার ভুল করবেন না। আর তার পর আপনি চাইলে আপনার অ্যাপ এতে অ্যাড করে নিতে পারবেন। অ্যাপ থেকে ইনকামের জনপ্রিয় পদ্বতি গুলো জানতে আর আপনার ইনকাম বাডিয়ে নিতে আমাদের এ লেখাটি পড়ে নিতে পারবেন।

এ লেখাটিতে আপনি সে সকল পদ্বতি জানতে পারবেন যা ব্যবহার করে নেট ফ্লিক্স এবং কেন্ডিক্রাশ এর মতো অ্যাপ গুলোর কোটি কোটি টাকা ইনকামের কারণ।

5. অ্যাডডওয়ার্ড থেকে

গুগল অ্যাডওয়ার্ড হলো একটি এমন প্রগ্যাম যার মাধ্যমে আপনি আপনার পণ্যের অ্যাড দেখাতে পারবেন আর বিক্রিও করতে পারবেন।

আর এটা অ্যাফিলিয়েট মার্কেট এর জন্য আসাধারন কাজ করে। আপনি আপনার অ্যাফেলিয়েট প্রগ্যাম থেকে একটি পণ্য বাছাই করে নিন আর অ্যাডওয়ার্ডে গিয়ে সে পণ্যের অনুসারে কান্টি বাছাই করে নিন। তার পর আপনার অ্যাড গুগলের পডাক্ট গুলোতে সো করাতে লাগবে।

মনে রাখবেন যে কোনো পণ্য বাছাই করার আগে বুঝে নিন যে সে পণ্যটি সে দেশে কেন ডিমান্ডেট। কারণ আপনার পন্যের বিক্রয় হওয়াটা নির্ভর করে তার চাহিদার উপর।

আর যেমনটা বলেছি আপনি চাইলে আপনার নিজের পণ্যও বিক্রয় করে নিতে পারবেন বা বিজ্ঞাপন দিয়ে নিতে পারবেন।

তবে এখানে কথা হচ্ছে আপনার অ্যাডওয়ার্ডে কাজ করার জন্য সামান্য পরিমান অর্থ ব্যয় করতে হবে।

আরও কিছু পড়ুন আপনার পছন্দের

অ্যাডসেন্স দিয়ে ওয়েবসাইট থেকে কি ভাবে ইনকাম করে নিবেন আর কি ভাবে আপনার সাইটিকে পুরোপুরি ভাবে তৈরি করে নিবেন খুব অল্প সময়ের মধ্যে বিষয় গুলো জানার জন্য আপনি আমাদের এ লেখটি পড়ে নিতে পারবেন।

আর তাছারা অ্যাডসেন্স থেকে কোন কোন পদ্বতিতে টাকা তুলা যায় বা হাতে পেতে পারবেন তা স্পস্থভাবে জানার জন্য আমাদের এ লেখাটি পড়ে নিতে পারবেন।

আর যুুদি আপনি অ্যাড মোব দিয়ে গুগল প্লে স্টোর থেকে ইনকাম করে নিতে চান বা আপনি একজন ভালো অ্যাপ ডেবোলপার আর গুগলে আপনি আপনার অ্যাপ আপলোড দিয়ে রেখে থাকেন তবে আপনার ইনকাম আরও বাড়ানোর জন্য আপনি আমাদের এ লেখাটি পড়ে দেথকে পারবেন।

আমারা আমাদের এ লেখাটিতে তুলে ধরেছি এমন কিছু জনপ্রিয় পদ্বতি যেগুলো নেটফ্লিক্স এর মতো সাক্সেসফুল প্লাফরম ব্যবহার করে নিজেদের অ্যাপ দিয়ে আয় করে চলেছে লক্ষ লক্ষ টাকা।

Featured