মেসেঞ্জার অ্যাপস ডাইনলোড সেরা ৬

messenger apps download

মেসেঞ্জার অ্যাপস ডাউনলোড করা নিয়ে আমাদের আজকের এ ব্লগ। এ ব্লগে আমারা কথা বলবো ফেসবুক মেসেন্জার অ্যাপস সহ ২০২১ সাল এর এমন সব মেসেন্জার অ্যপস নিয়ে যেগুলোর একটি আপনার এনন্ড্রোয়েড ফুনে না থাকলে আপনার এন্ড্রোয়েড ফুন চালানোর কোনো মানেই থকবে না। সুতরাং লেখাটি পড়ে নিজের জন্য সেরা মেসেন্জার অ্যাপসটি বাছাই করে নিন।

আশা করি আপনারা সবাই ভালো আছেন। মেসেন্জার অ্যপস কয় ধরণের হতে পারে এবং কী কী? তাদের ব্যাবহার? কোনটি সেরা কোনটির ফিচার কী? কোনটির নির্মাতা বা ডেবোলপার কে? কোনটি কট জনপ্রিয়? আজ আমাদের এ ব্লগে আমরা এ বিষয় গুলো নিয়ে কথা বলবো।

আমাদের ব্লগটি পড়ে দেখুন আর জেনে নিন আপনি যে ম্যাসেন্জার অ্যাপসটি আপনার ফোনে ব্যাবহার করেন তা আসালে আপার জন্য ঠিক কী না বা কোনটি আপনার সব ধরণের প্রয়োজন মেটাতে সক্ষম।

আপনাদের বুঝার সুবিধার্থে আমি টেবিল করে প্রত্যেকটি মেসেন্জার অ্যাপস এর পার্থক্য পাশাপাশি বুঝিয়ে দিবো আর এদের ব্যাখ্যা নিজে দিয়েদিবো।

মেসেন্জার অ্যাপস ডাউনলোড সেরা ৬

মেসেন্জার অ্যাপস দুই ধরণের হয় আর এগুলো হলো:

  • পারমানেন্ট মেসেন্জার অ্যাপস
  • টেম্পরারি মেসেন্জার অ্যাপস

পারমানেন্ট ম্যাসেন্জার অ্যাপস হলো সে মেসেন্জার অ্যাপস যেগুলো আপমাদের ডিভাইসে সেট করা থাকে। অথ্যৎ যে কম্পানির ডিভাইস আমরা ব্যাবাহার করি সে কম্পানি আমাদের মোবাইলে এটা সেট করে দেয় আর এটা কখনও মোবাইল থেকে রিমুভ করা যায় না।

টেম্পরারি ম্যাসেন্জার অ্যাপস হলে সে মেসেন্জার অ্যাপস যেগুলো আমাদের ডিভাইসে আমরা এক্টারনাল ভানে ইনস্টল করি আর ইউজ করি। আবার যে কোনো সময় চাইলে রিমুভ বা আনইনস্টল করতে পারি।

মোবাইল ফোন আবিষ্কার হয় ১৯৯৩ সালে যুদিও এর পেছনে আরও আনেক মোবাইল এর ইনভেনশন আছে তবে পারফেক্ট রুপ পায় ১৯৯৩ সালে। আর মোবাইল ফোনে মেসেন্জার অ্যাপস আসে নোকেয়া মোবাইল কম্পানির পাবলিশ করা ফোন এর সাথে।

তবে যে মেসেন্জার অ্যাপ নোকেয় অ্যাড করেছিল সেটা ছিল সম্পূর্ণ পারমানেন্ট মেসেন্জার অ্যাপস। যা ইউজ করতে হলে বা কাউকে কোনো প্রকার মেসেজ পাঠাটে হলে আপনার ফোন থেকে টাকা কাটা হতো।

২০০৪ সালে হারবাড ইউনিভার সিটির ছাত্র মার্ক যোকার বাগ ফেসবুক আবিষ্কা করে নিজের বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ রক্ষার জন্য। পরবর্ততে এটা সবাই ব্যবহার করতে শুরু করে। আর এর পরক্ষণে ২০০৮ সালে ফেসবুক কম্পানি আলাদা মেসেন্জার অ্যাপ পাবলিশ করে। বেস এখান থেকেই মেসেন্জার এর ধারণা আর যারণি শুরু।

তার পর আরও আনেক মেসেন্জার অ্যাপস ডেবোলপ হয় তবে এখনও পযন্ত সেরার তালিকা কয়েকটিই ধরে রাখতে পেরেছে।

মেসেন্জার অ্যাপস সেরা ৬ টেবিল পার্থক্য

এক্সটারনাল সেরা ছয়টি অ্যাপ এর ম্যধ্যে তাদের পার্থক্য নিচের টেবিল এর মাধ্যমেতুলে ধরলাম। এখান থেকে আপানা বুঝতে পারবেন কোনটা মানুষ কেমন পছন্দ করে আর কত বেশী ইউজ করে।

মেসেন্জার অ্যাপস এর নামডেবোলপার কম্পানিপাবলিশ সাল এবং ডাউনলোডসাপোর্টেড languageসাপোর্টেড countryবিশেষত্ব
মেসেন্জার (Messenger)FacebookJan 30, 2014- 5B+38 languages+100++চ্যাট হ্যাড
হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপস(WhatsApp)WhatsApp LLCOct 18,2010- 5B+ 40 languages+স্মুথ লুক
স্কাইপ (Skype)SkypeOct 4,2010- 1B+11 languages for Translated Conversationsএভেলাভেলিটি
ভাইবার (Viber)Viber Media S.a.r.l.Jul 19,2011- 500M+27 languagesইজি টু কনফিগার
মেসেন্জার লাইট (Messenger lite)FacebookMay 25,2017- 500M+38 languages+100++কম স্টোরেজ নেয়
ইমো (Imo)Baby PenguinAug 27,2018- 5M+six official languages174 countryভিডিও কল কোয়ালিটি

এখন আমরা কথা বলবো এগুলোর ফিচার নিয়ে। কোনটি কেমন পারফারমেন্স করে? কোনটি কেমন সার্ভিস অফার করে আর কোনটির দাম কেমন তাই নিয়ে আমার আলোচনা করবো।

ফিচার গুলে সম্পর্কে জানতে পারলে আপনাদের সিদ্ভান্ত নেওয়াটা আরও সহজ হয়ে যাবে। এ তালিকাতেই আমার বলবো সেরা ৬ এর প্রত্যেকটির ইউনিক ফিচার যেগুলো এ অ্যাপস গুলো ব্যবহার এর আগে আপনার জানাটা অত্যন্ত দরকার।

১. মেসেঞ্জার অ্যাপস ডাইনলোড (Messenger Apps download)

মেসেন্জার অ্যাপস (Messenger App) ফেসবুকের ডেবোলপ করা একটি অ্যাপ যা সুধু মেসেজিং এর জন্য ব্যবহার করা হয়। এটির প্রায় আনেকগুলে আপডেট এসেছে এইপযন্ত। এবং প্রতি আপডেটের পর এর আইকন পরিবতিরত হয়েছে।

ফেসবুকের মেসেন্জার অ্যাপ (Messenger App) আপনারা ব্যবহার করতে পারবেন আপনার ফেসবুক একাইন্ট না থাকলেও। মেসেন্জার অ্যাপ (Messenger App) এর ফিচার ‍গুলো হলো:

  • ক্রস অ্যাপ মেসেজিং এবং কলিং- আপনি আপনার ইন্সট্রাগাম ফ্রন্ডদের সাথে কনেক্ট হতে পারবে মেসেন্জার থেকে।
  • ভেনিস মোড- আপনার পাঠানো মেসেজ ভেডিষ হয়ে যাবে যখন আপনি আপার চ্যাটিং ক্লজ করবেন।
  • প্রাইভেসি সেটিং- আপনি চোজ করে রেখতে পারবে কে আপনার সাথে কন্টেক্ট করতে পারবে আর এবং আপনার মেসেজ কোথায় পৈছাবে।
  • কস্টম রিএকশন
  • চ্যাট থিম
  • একসাথে দেখুন মুভি ম্যসেন্জার ভিডিও চ্যাট এবং রুমস এর মাধ্যমে
  • মেসেন্জার রোম লিংক সেয়ারিং
  • ফ্রি ভিডিও কল
  • ডার্ক মোড
  • ভয়েস এবং ভিডিও ম্যাসেজ রেকড করার অপশন
  • ফাইল, ফটো ভিডিও সেয়ার
  • ম্যসেন্জারে এস এম এস অ্যাপ এড করতে পারবেন
  • যেকোনো ডিভািইস থেকে চ্যাট করুন আপনার বন্ধুর মোবাইল ম্যাসেন্জারে

ডাউনলোড বাটনটি কাজ না করলেেএ লিংকটি ব্যবাহার করুন: play.google .com/store/apps/details?id=com.facebook.orca&hl=en&gl=US (.com এর আগে একটি স্পেস আছে তা কেটে নিবেন)

২. হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাপস(WhatsApp download)

ওয়াটস অ্যাপ (WhatsApp) মেসেন্জার অ্যাপটি ফেসবুকের সাথে পাটনারশিপ করে রেখেছে। এটার ব্যবহার কারির সংখ্যা ৫ মিলিয়নের উপরে ঠিক ফেসবুক ম্যসেন্জার এর মতো। এটা ব্যবহার করাটা খুবি সহজ আর তাছারা এটা ব্যবহারের জন্য আপনাকে কোনো সাবক্রিপশন করতে হয় না।

ওয়াটস অ্যাপ (WhatsApp) মেসেন্জার অ্যাপটি কোনো দিক দিয়ে ফেসবুক ম্যসেন্জার অ্যাপ থেকে কম না। ওয়াটস অ্যাপ (WhatsApp) মেসেন্জার অ্যাপটির ফিচার ‍গুলি হলো:

  • প্রাইবেট ম্যাসেজ এর জন্য এক্সটা প্রাইভেসি- ওয়াটস অ্যাপ (WhatsApp) মেসেন্জার অ্যাপ নিজেও আপনার ম্যসেজ পরবেনা বা অপিনিয়ন বিজনেসের খাতিরে বিক্রি করবে না
  • সহজ আর সুরক্ষিত কনেকশন
  • গুপ চ্যাট কনেক্টেড থাকার জন্য
  • লোকেশন শেয়ার করতে পারবেন যে কোনো সম আপনার বন্ধুদের সাথে আবার যেকোনো সময় বন্ধও করে দিতে পারবেন।
  • দ্রত কনেকশনের জন্য ভয়েস ম্যাসেজ
  • স্টেটাস এর ম্যাধ্যমে ডেইলি মমেন্ট শেয়ার
  • যে কোনো সময় প্রভাইডারদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন

ডাউরলোড বাটনটি কজে না করলে এ লিংকটি ব্যবহার করুন: play.google .com/store/apps/details?id=com.whatsapp&hl=en&gl=US (.com এর আগে একটি স্পেস আছে তা কেটে নিবেন)

৩. স্কাইপঅ্যাপস ডাউনলোড (Skype download)

স্কাইপ (Skype) এর ফিচার গুলি ততটাও বেশী না মেসেন্জার আর ওয়াটস অ্যাপ এর মতো। তবে স্কাইপ (Skype) এর বিশেষত্ব হলো এটি থেকে আপনি ল্যান্ডলাইনেও কল করতে পারবেন তাও আবার খুবি কম রেটে কথা বলতে পারবেন।

স্কাইপ (Skype) অ্যাপটির ফিচার গুলো হলো:

  • এইচ ডি ভিডিও কল
  • চ্যাট
  • এস এম এস কন্টেক্ট
  • ফটো, ভিডিও সেয়ারিং
  • ভয়েস কল- ভয়েস কল করুন মোবাইলে, ল্যান্ড লাইনে ‍খুবি কম রেটে
  • এক্সপ্রেস ইউরসেল্ভ অপশন

ডাউরলোড বাটনটি কজে না করলে এ লিংকটি ব্যবহার করুন: play.google .com/store/apps/details?id=com.skype.raider&hl=en&gl=US (.com এর আগে একটি স্পেস আছে তা কেটে নিবেন)

৪. ভাইবার অ্যাপস ডাউনলোড (Viber download)

মেসেঞ্জার অ্যাপস

ভাইবার (Viber) অ্যাপটির ফিচার গুলি আসালে সত্যিই আবাক করার মতো। এর ফিচার গুলো অনেকটা মেসেন্জার আর ওয়াটস অ্যাপ এর মতো তবে এটি মেসেন্জার আর ওয়াটস অ্যাপের মতো সেম ফিচার অফার করে না কিন্তু এটি একটু ভিন্ন ফিচার অফার করে।

তবে ভাইবার (Viber) আমার যথেষ্ঠ ভালো লেগেছে। এতে কিছু বিষেশ এট্রিবিউট আছে যা ওই মেসেন্জার অ্যাপগুলোতে নেই।

ভাইবার (Viber) অ্যাপটির ফিচার গুলো হলো:

  • ফ্রি ক্রিস্টেল ক্লিয়ার ভিডিও কল
  • গ্রোপ করিং
  • ফ্রি মেসেজ সেন্ডিং
  • কল এবং টেক্সট প্রাইভেসি ১০০%
  • সেল্ফ ডিসট্রাকটিভ ম্যসেজ- পাঠানো ম্যসেজ নিজে থেকেই নষ্ট হয়ে যাবে বা ডিলিট হয়ে যাবে আপনার সেট করা সময় পর হতে পারে সেটা ১০ সেকেন্ড, ১ মিনিট অথবা ১ দিন
  • এক্সপ্রেস ইউরসেল্ফ উইথ গ্রিফ এন্ড ইস্টিকার- আপনি ভাইবারে নিজের স্টিকার আর গ্রিফ তৈরি করে ইউজ করতে পারবেন
  • আনলিডিটেড মেম্বার নিয়ে ভাইবার কমিউনিটি
  • গুপ ম্যসেজে সেট আপ করতে পারবেন পুলস, কুইজ, আর মেনশন
  • কল ভাইবার অথবা ননভাইবার ইউজার এর ল্যন্ডলাইনে লো কস্ট সার্ভিসে

ডাউরলোড বাটনটি কজে না করলে এ লিংকটি ব্যবহার করুন: play.google .com/store/apps/details?id=com.viber.voip&hl=en&gl=US (.com এর আগে একটি স্পেস আছে তা কেটে নিবেন)

৫. মেসেন্জার লাইট অ্যাপস ডাউনলোড (Messenger lite)

মেসেন্জার লাইট নিয়ে আলাদা কিছু বলার নেই। কারণ মেসেন্জার লাইট ফেসবুকেরই আরও একটি ডেবোলপমেন্ট যেটা মুলত তৈরি করা হয়েছে কম স্টোরেজ এর ফোন এর জন্য।

তবে যেহেতু এটি লাইট ভার্সন সেহেতু এতে অনেক ফিচার নেই যেগুলো আসল ভার্সন টিতে দেওয়া হয়েছে। তবুও এটি যথেষ্ঠ ভালে পপুলারিটি পেয়েছে।

মেসেন্জার লাইট (Messenger lite) অ্যাপটির ফিচার গুলো হলো:

  • যে কারও সাথে কনেক্ট হতে পারবেন ফেসবুকে, ম্যসেন্জারে অথবা ফেসবুক লাইটে
  • দেখতে পারবেন কখন কেউ এক্টিভ আর কখন নে অফলাইন
  • ওয়ন ওন ওয়ান অথবা গ্রোপ চ্যাটিং
  • সেন্ট ফটো লিয়ং এবং বিভিন্ন ধরণে স্টিকার
  • মেক ওয়ান ওন ওয়ান ভয়েস টকিং

ডাউরলোড বাটনটি কজে না করলে এ লিংকটি ব্যবহার করুন: play.google .com/store/apps/details?id=com.facebook.mlite&hl=en&gl=US (.com এর আগে একটি স্পেস আছে তা কেটে নিবেন)

৬. ইমো অ্যাপস ডাউনলোড (Imo download)

ইমো (Imo) হলো এমন একটি অ্যাপ যার ব্যবহার মানুষ ভিডিও কল মাত্রই করে। ভিডিও কলে কথা বলার জন্য সবচেয়ে বেশী ব্যবহার করা হয় ইমো (Imo). ইমো সাধারণ মেসেন্জার অ্যাপের মতোই ফিচার অফার করে তবে ইমোর একটি আপশন হলো পয়েন্ট।

ইমো পয়েন্ট দ্বার আপনি বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে যে কারও সাথে নিজে অনলাইনে থেকে অফলাইনের ইউজারদের সাথে কথা বলতে পারবেন।

ইমো (Imo) অ্যাপটির ফিচার গুলো হলো:

  • হাই কোয়ালিটি ভিডিও কল এবং ভয়েস কল এন্ড্রোয়েডে এবং আইফোনে
  • ফ্রি এবং আনলিমিটেড মেসেজ, ভিডিও কল, এবং ভয়েস কল 2G, 3G, 4G অথবা Wi-Fi এ
  • গুপ ভিডিও কল ফেমেলি আর ফ্রেন্ডদের সাথে
  • ফেস্ট ভিডিও আর ফটো সেয়ারিং
  • ১০০ ও বেশী ফ্রি স্টিকার
  • এস এম এস আর ফোন কল এর চার্জ নেই
  • ইমো পয়েন্ট- ইমোতে কিছু টেস্ক কম্পিলিট করে ইমো পয়েন্ট পেয়ে যাবেন আর তা দিয়ে অফলাইনে আপনি অনলাইনে ইমোতে থেকে কল করতে পারবে এটে আপনার টাকা কাটবেনা বরং পংয়েন্ট কাটবে

ডাউরলোড বাটনটি কজে না করলে এ লিংকটি ব্যবহার করুন: play.google .com/store/apps/details?id=com.imo.android.imoim&hl=en&gl=US (.com এর আগে একটি স্পেস আছে তা কেটে নিবেন)

আমাদের সাইট থেকে আরও পড়ুন

আমাদের সাইটে আমরা লিখি এমন সব বিষয়গুলো নিযে ব্লগ যেগুলো এখন এই ডিজিটাল সময়ে একজন এনড্রোয়েড মোবাইল ইউজারদের জানাটা অত্যন্ত দরকার। কারন এখন প্রায় চারিদিকে ডেবোলপ হচ্ছে নতুন নতুন সম্ভবনা।

Featured