ইমেইল আইডি খোলার best নিয়ম 21

email open

ইমেইল আইডি খোলার অ্যাপ কয় ধরনের হতেপারে আর কোন ইমেইল আইডি সার্ভিস প্রভাইডার কেমন তা নিয়ে ইতোমধ্যে আমাদের একটি ব্লগে আমারা আলোচনা করে রেখেছি। আপানারা চাইলে আমাদের ”ইমেইল আইডি খোলার best অ্যাপস এবং নিয়ম” এ ব্লগটি পড়ে নিজের জন্য সেরা অ্যাপটি বাছাই করে একাউন্ট করে নিতে পারবেন।

আমরা এখানে আমাদের আগের ব্লগ এ বলা ইমেইল আইডি সার্ভিস প্রভাইডারদের লিস্ট অণুসারে ইমেইল আইডি খোলা দেখাবো।

ভিবিন্ন ইমেইল সার্ভিস প্রভাইডার নিজের ইউজারদের আইডি অপেন এর ক্ষেত্রে ভিবিন্ন ধরণের ডিটেইল চেয়ে থাকে। তবে সব ক্ষেত্রে ঘুরে ঘুরে ওরা আপানর কাছে আপানার জন্ম সাল, তারিখ, এবং বার জানতে চায়। আর অনেক সময় আপনার মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন চায়।

আবার কিছু ‍কিছু ক্ষেত্রে এটা স্কিপও করে দেওয়া যায়। আবার কিছু কিছু সময় যখন সিস্টেম আপনাকে রোবোট মনে করে সহজে আপানাকে এক্সেপ্ট করে না আর ভিবিন্ন রকম ভেরিফিকেশন চায়।

আমাদের ব্লগটি পড়ে গিয়ে আপনি ইমেইল আইডি তৈরি করুন তবে আপনি তেমন কোনো সমস্যায় পরবেন না। এ থেকে আপনি অনেকিছু শিখতে পারবেন এবং জানতে পারবেন।

Table of Contents

ইমেইল আইডি খোলার নিয়ম

ইমেইল আইডি খোলা

ইমেইল আইডি খোলার নিয়ম কম বেশী অনেকেই জানে না। কারণ এন্ড্রোয়েডে গুগল থেকে অ্যাপ ডাইউনলো দিতে হলে গুগল মেইল বা জিমেইল আইডির এর প্রয়োজন হয়। আর সেজন্যই অন্যের আইডি ব্যবাহার করেন বা নিজে অন্যকে দিয়ে জিমেইল খুলিয়ে নিন অন্তত পক্ষে গুগল প্লে স্টোর ইউজ করার জন্য।

আমি এখানে ঠিক আমাদের আগের ব্লগ এর তালিকা অণুসারে ইমেইল আইডি অ্যাপ এ খোলার নিয়ম সাজিয়েছি।

১. জিমেইল বা গুগল মেইল ( Google mail)

জিমেইল বা গুগল মেইল অপেন করার জন্য আপনাকে আগে জিমেইল অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করে নিতে হবে যুদি আপনি আপনার এন্ড্রোয়েড ফোনে জিমেইল ব্যবহার করতে চান। কিন্তু যুুুদি আপনি পিসি কিংবা ল্যাপটপে ইউজ করতে চান তবে আপনি ব্রাউজার ব্যবহার করুন আর Google mail আপশনটিতে ক্লিক করুন আর পদ্বতি গুলো অণুসরণ করুন।

জিমেইল অ্যাপটি সেট আপ শেষে ক্রিয়েট একাইউন্ট অপশনে গেলে আপনার সামনে একটি পেজ খুলবে সেখান থেকে গুগাল চোজ করে নিবেন।

স্টেপ- চোজ প্রভাইডার

পেজটি থেকে আপনি চাইলে আউটলুক, ইয়াহু,, এক্সচেন্জ অফিস এবং আও অনেক ইমেইল একাউন্ট করে নিতে পারবেন। তবে সে সব একাউন্টের ক্ষেত্রে আপানর এ গুগল মেইল বা জিমেইল অ্যাপটি থার্ডপার্টি অ্যাপ হিসেবে পরিচিত হবে। অপনি এ একটি জিমেইল অ্যাপটিতে আনেক একাউন্ট ক্রিয়েট করতে পারবেন এবং এক্সেস করতে পারবে।

স্টেপ-চোজ একাউন্ট অপশন

জিমেইল বাছাই করার পর একটু সময় নিতে পারে লডিংএ তাবে এর পরে আপনাদের সামনে উপরে দেখানো ডিসপ্লেটি সো হবে। আপনি এ পেজে বক্সটির নিচে একটি অপশন দেখতে পাবেন। যেটিতে লেখা Create account এ ক্লিক করে দিতে হবে।

স্টেপ-চোজ একাউন্ট টাইপ

ক্রিয়েট একাউন্ট এ ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার সামনে দুইটি অপশন খুলে যাবে যেখানে লেখা থাকবেম For myself ? এবং to manage my business. যেহেতু আপনি একাউন্ট করতে চান শুধু ইমেইল লেনতেন করার জন্য এবং এতে ব্যবসায়িক কোনো বিষয় নেই সেহেতু For myself ? বাছাই করে নিন।

স্টেপ-সেভ নেম

For myself ? বাছাই করার পর আপনার সামনে উপরে দেখানো একটি ডিসপ্লে চলে আসবে আর এখানে আপনি আপার নামের প্রথম অংশ আর শেষ অংশ বসিয়ে দিয়ে Next বাটনে ক্লিক করে দিবেন। আর তার পর আপানর সামনে নিচের পেজটির মতো একটি ডিসপ্লে আসবে।

স্টেপ-বেসিক ইনফরমেশন

এ পেজটিতে আপনি আপনার জন্ম তারিখ বসাবেন আপনার জন্মের মান্থ, আপনার জন্মের ডেট, আর আপনার জন্মের সাল। আর নিচে জেন্ডার অথাৎ আপনার লিঙ্গ। পুরুষ হলে মেল আর নারী হলে ফিমেইল। কাজ শেষ হলে Next বাটনটি প্রেস করে দিবেন।

স্টেপ-ক্রিয়েট পাসওয়ার্ড

আপনার জন্ম তারিখ আর লিঙ্গ দেওয়ার পর আপনার সামনে খুলে যাবে পাসওয়ার্ড দেওয়ার পেজ। এখানে আপনি পাসওয়ার্ড দিয়ে দিবেন। পাসওয়ার্ডটি অবশ্যই স্টং দেওয়ার চেস্টা করবেন। আর পাসওয়ার্ডএ নাম্বার, ক্যাপিটাল লেটার, স্মল লেটার, আর ভিবিন্ন প্রকার চিহ্ন ব্যবাহার করবেন। পাসওয়ার্ড দেওয়ার পর আপনি Next বাটনে আবার ক্লিক করে দিবেন।

স্টেপ-এড ফোন নাম্বার

Next বাটনে ক্লিক করার পর আপনার সামতে একটি নতুন ডিসপ্লে সো করবে যেখানে আপনার নাম্বার চাইবে তারা আপানর একাউন্টের সিকিউরিটি বাড়ানোর জন্য। আপনি চাইলে নাম্বার দিয়ে দিতে পারবেন আবার নাও দিতে পারবেন। দেওয়ার ক্ষেত্রে আপানার নাম্বার এন্টি করে Next বাটনে ক্লিক করলে আপানার নাম্বারে একটি ভেরিফিকেশন কোড চলে আসবে আর সেটি বসালে আপনার নাম্বার ভেরিফাই হয়ে যাবে। আর যুদি আপনি নাম্বার ভেরিফিকেশন না করতে চান তবে আপনি এটা স্কিপ করে দিতে পারবেন Skip অপশনটিতে ক্লিক করে।

নাম্বার দিলে অবশ্যই নিজের দেশের কোডটি বছাই করে নিবেন। কারণ অনেক সময় কোড অটো বাছাই হয় না।

স্টেপ-ইমেইল সেটআপ

নাম্বার ভেরিফিকেশন শেষ হলে আপানার সামনে এমন একটি পেজ আসবে। আপনি এখান থেকে আর কিছু না করে Next বাটনে ক্লিক করে দিবেন।

স্টেপ-ট্রামস এন্ড কন্ডিশন

Next এ ক্লিক করার পর আপনার সামনে এমন একটি পেজ আসবে যেখানে কিছু লেখা দেখাবে। এগুলো হলো গুগলের ট্রাম্ন এন্ড কন্ডিশন। আপনি চাইলে পড়েদেখতে পারবেন আবার না চাইলে না পড়ে স্ক্রল করে একটু নিচে আসলেই বা More এ চাপলেই agree নামের একটি অপশন পেয়ে যাবেন। এতে ক্লিক করে দিলেই আপনার কাজ শেষ।

স্টেপ-ফাস্ট ইমেইল

বেস, অপেন হয়ে গেছে আপানর জিমেইল একাউন্ট। আপানর নামের প্রথম অক্ষরে বানানো লগো তে ক্লিক করলেই আপনার সামনে চলে আসবে আপনার একাউন্টের যাবতিয় সব সেটিং।

২. আউটলুক (Outlook)

আউটলুম (Outlook) হলো মাইকোসফ্টের একটি ডেবোলপটেড মেইল পদ্বতি। এটি একটি ইমেইল ক্লাইন্ট অ্যাপ বা প্রগ্যাম। আমরা জানি ইমেইল ক্লাইন্ট অ্যাপ বা প্রগ্যাম হলো সেগুলো যে গুলো প্রায় সবধরণের ইমেইলই সাপোর্ড করে আর ইনক্সে একই সাথে স্টোর করে।

আউটলুক (Outlook) ইমেইল ক্লাইন্ট এ একাইউন্ট করাটা তেমন কোনো কঠিন বিষয় না। কারণ ইমেইল ক্লাইন্ট অ্যাপ গুলো তৈরিই করা থাকে তৈরি ইমেইল লগইন করে ইউজ করার জন্য।

আউটলুক (Outlook) একাউন্ট অপেন করার জন্য আপনাকে প্রথমে তা ফোনে ডাউনলোড করতে হবে। আবার গুগল থেকেও পারবেন তবে অ্যাপ হলে বেশী সহজ হয়।

অ্যাপটি ডাউনলোড করে এর সেটআপ করা শেষ হলে অ্যাপটি অপেন করুন। আপনার সামতে এরকম একটি পেজ সো হবে।

স্টেপ- চোজ অপশন

এ পেজটি থেকে আপনি একেবারে নিচে লেখা CREATE NEW ACCOUNT এ ক্লিক করে দিবেন। আর ক্লিক করার পর লোডিং এ একটু সময় নিবে। তার পর নিচে দেখানো পেজটি খুলবে।

স্টেপ-ক্রিয়েট ইউজার নেম

এ পেইজে আসার পর তারা শুরুতেই আপনার কাছে আপনার ইমেইল এর ধরণ চাইবে। আপনি এখানে আপনার তৈরিকরা ইমেইল অথাৎ আপনার ফাস্ট নেম লাস্ট নেম এর সমন্বয় করা নাম ছোট হাতের অক্ষরে ‍লিখতে হবে। যেমন আপনার নাম bel এবং নামের শেষের অংশ carlos এগুলো একত্রে ছোট হাতের অক্ষরে লেখে সেখানে বসিয়ে দিবেন আর নামটি হবে কিছুটা এমন belcarlos@outlook.com/ belcarlos@hotmail.com এমন।

আপনার ইমেইল নামটি দিয়ে Next এ ক্লিক করুন।

স্টেপ-ক্রিয়েট পাসওয়ার্ড

এবার আপনি আপানর পাসওয়ার্ডটি ক্রিয়েট করে নিন। এবং নিচের খালি বক্সটি টিক মার্ক করেদিন। শেষ করে আবার Next বাটনে ক্লিক করেদিন।

স্টেপ-রোবট ভেরিফাই

তারপর আপানর সামতে রোবোট ভেরিফিকেশন আসবে আর আপান আবার Next এ ক্লিক করে দিয়ে তারা যেভাবে বলবে কাজটা করে দিবেন। এটা তারা রাখে সিকিউটিরিটির জন্য কারণ অনেকে একাধিক একাউন্ট করে তাও আবার কম্পিউটার বুট ব্যবহার করে। যেহেতু কম্পিউটার বুট আগে থেকেই প্রগ্যাম করা থাকে একটা নিদিষ্ট নিয়মের উপর সেহেতু বিরুপ পরিবেশে মানুষের মতো চিন্তা করাতে পারে না আর সে জন্য এ সমস্যা গুলো কম্পিউটার বুট সল্ব করতে পারে না।

স্টেপ-এড ডিটেইল

রোবট ভেরিফিকেশন এর পর আপনার ফোন স্রিনে এরকম একটি পেজ চলে আসবেন। এখানে আপনি আপনার ডিটেইল দিবেন। আপনার ফাস্টনেম, লাস্টনেম, জন্মতারিখ, জন্মসাল এসবই। সমস্ট ডিটেইল শেষ হলে আপনি Next এ ক্লিক করবেন।

স্টেপ- কনফরম এজ

তারপর আপনার সামনে এমন একটি পেজ খুলবে আর সেখানে আপনি আবার Next এ ক্লিক করবেন। এখানে থেকে আপনি চলে যাবেন নিচে দেখানো স্টেপ এ।

স্টেপ-চোজ মেবি লেটার

এখান থেকে আপনি বাছাই করে নিবেন MAYBE LATER আর তার পর উপরে দেখানো লগো টাতে ক্লিক করলেই আপনি চলে যাবেন সব ধরণের সেটিং এ । এখান থেকে আপনি আপনার সব ধরণের এক্টিভিটি কন্ট্রোল করতে পারবেন।

স্টেপ-সেটিংএবং মেনু

এর সাথে শেষ হলো আউটলুক একাউন্ট খোলা। আপনি চাইলে আপনার এ একাউন্ট আপনার ল্যাপ্টপে ব্যবহার করতে পারবেন।

৩. ইয়াহু মেইল (Yahoo!)

ইয়াহু মেইল (Yahoo!) এ ইমেইল খুলতে হলে আপনাকে ইয়াহু মেইল (Yahoo!) এর অ্যাপটি গুগাল প্লে স্টেরথেকে ডাউনলোড করে নিতে হবে। আর ডাউনলোড না করা ছারাও আপনি ইয়াহু মেইল (Yahoo!) এ ইমেইল করতে পারবেন। এজন্য আপনাকে জিমেইর অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে।

ইয়াহু মেইল (Yahoo!) অপেন করার জন্য আপনার ফোন এর জিমেইল অ্যাপটি অপেন করে তার থেকে Yahoo! বাছাই করে নিন।

স্টেপ-চোজ প্রভাইডার

Yahoo! বাছাই করে তাতে ক্লিক করার পর আপনি এমন একটা পেজে চলে আসবেন। নিচে আমি Yahoo! তে ক্লিক করার পর যে পেইজে চলে যাবেন তার একটা স্কিনসট দিয়েছি। এখান থেকে আপনি বাছাই করে নিবেন ক্রিয়েট ‍এন একাউন্ট এ অপশনটি।

স্টেপ-ক্রিয়েট এন একাউন্ট

এখান থেকে ক্রিয়েট একাউন্ট অপশনটিতে ক্লিক করলে আপানর সামনে এসে পরবে ডিটেইল দেওয়ার অপশন। এখানে আপনি আপনার ডিটেইল দিয়ে দিবেন। আর +1 এর জায়গায় +880 করে নিজের নাম্বার দিয়েদিবেন। সব শেষে কন্টিনিউ চেপে দিবেন।

স্টেপ-ইমেইল সাইন আপ

এবার আবার আপনার নাম্বারটি উনারা চাইবে নাম্বার ভেরিফিকেশনের জন্য। নাম্বারটি লিখে টেক্সট মি ভেরিফিকেশন এ ক্লিক করে দিবেন।

স্টেপ-ইয়াহু নাম্বার ভেরিফিকেশন

এবার আপনার নাম্বারে একটি কোড Yahoo! থেকে যাবে আপনার এস এম এস বক্সে। সেখান থেকে কোডটি কপি করে বা এনে এন্টি করে দিয়ে ভেরিফাই এ ক্লিক করার সাথে সাথে আপনার নাম্বার ভেরিফাই হয়ে যাবে।

স্টেপ-নাম্বার ভেরিফিকেশন

এবার Done এ ক্লিক করে দিন।

স্টেপ-লাস্ট স্টেপ

তার পর আপনার সামনে খুলে যাবে আরও একটি পেজ। এখানে এগ্রিতে ক্লিক করে দিন।

স্টেপ-ট্রামস এন্ড কন্ডিশন

তার পরে আপনি জিমেইল অ্যাপ থেকে একাউন্ট করলে আপনার সামনে এমন একটি অপশন খুলবে আপনি নেক্সট করে দিন।

স্টেপ-গুগল একাউন্ট অপশন

আরার নিচের স্ক্রিনসট মতো আরও একটি পেজ খুলবে। এখানেও নেক্সট করে দিন।

স্টেপ-গুগল একাউন্ট সেটআপ

yahoo open 8

এখানেই আপনার ইয়াহু মেইল (Yahoo!) একাউন্ট করা শেষ হবে। এর পর আপনি ইয়াহু মেইল (Yahoo!) এর সকল প্রকার সার্ভিস এক্সেস করতে পারবেন।

৪. আউল মেইল (AOL mail)

আউল মেইল অপেন করার জন্য নিচের নিয়মগুলো অণুসরণ করুন। আমি প্রত্যেকটি স্টেপ স্ক্রিনসট করে দেখিয়ে দিয়েছি।

স্টেপ-লিংক অপেন

aol open 1

এখান থেকে ক্রিয়েট এন একাউন্ট অপশনটিতে ক্লিক করে দিন।

স্টেপ-ডিটেইল প্রভাইড

এখানে স্টেপগুলো ইয়াহুতে একাউন্ট করার মতোই।

স্টেপ- লগো এবং সেটিং

এখানেই শেষ হলো আউল একাউন্ট করা। আউল একাউন্ট করার সময় ইয়াহুর পদ্বতি অণুসরণ করলেও আউল এ নাম্বার ভেরিফিকেশন করার প্রয়োজন পরে না।

৫. যুহ মেইল (Zoho mail)

যুহ মেইল খুলার জন্য নিচের নিয়মটি ফলো করুন। প্রত্যেকটি স্টেপ এর সাথে আমি স্কিনসট দিয়েরেখেছি।

স্টেপ- যুহ মেইল( Zoho mail) অ্যাপ ডাউনলোড

যুহ মেইল অ্যাপ ডাউনলোড করার জন্য যুহ মেইল এর নিজিস্ব সাইটএ ‍গিয়ে ডাউনলোড করুন। কারণ আনেক সময় গুগলে সেমিলার আনেক অ্যাপ থাকার কারনে আমরা ভুল করে অন্য অ্যাপ ডাউনলোড করে নেই সঠিক ডিটেইল না জানার কারণে।

স্টেপ- সাইন আপ

এবার যুহ মেইল অ্যাপটি অপেন করে তা সেটআপ করে নিন। আর উপরের স্ক্রিন এর মতো ডিসপ্লে আসার পর একেবারে নিচে লাইন করা লেখাটিতে ক্লিক করুন।

স্টেপ- ডিটেইল প্রভাইড

ক্লিক করার সাথে সাথে আপনি চলে যাবেন একাউন্ট ক্রিয়েট করার অপশনে। এখানে আপনি আপনার ডিটেইল দিয়ে দিবেন। আর তার পর লাইন করা অপশনটিতে ক্লিক করবেন।

স্টেপ- অটিপি এবং ভেরিফিাই

সমস্ত ডিটেইল দিয়ে অপশন গুলো ফিল আপ করার পর আপনার সামনে একটা মেমেজ ভেরিফাই এর অপশন আসবে। আপনার দেওয়া নাম্বারটিতে একটি কোড বা OTP চলে যাবে আপনার কাজ হলো সেই OTP বা কোডটি এ বক্সে বসিয়ে ভেরিফাই এ এন্টার করা বা ক্লিক করা।

স্টেপ- ইমেইল রিসিভ

শেষ আপনার একাউন্ট ক্রিয়েট হয়ে যাবে। এখানথেকেই আপনি যুহমেইল ইউজ করতে পারবেন। আপনার সকল প্রকার ইমেইল এ অ্যাপটির ভিতরে আসবে।

এখানেই শেষ হয় আমাদের ইমেইল সম্পর্কিত কাজ। আপনারা চাইলে যেকোনো একটিতে একাউন্ট অপেন করে আপনি আপনাদের যোগাযোগ রক্ষা করতে পারবেন।

উপরে দেখানো প্রত্যেকটি ইমেইল আইডি সার্ভিস প্রভাইডাররা অন্যসব ইমেইল আইডির সার্ভিস প্রভাইডারদের চেয়ে প্রায় রেটিংস, ডাউনলোড নাম্বার, আর ভালো রিভিউ সবদিক দিয়ে এগিয়ে।

তাছারা আমারা আমাদের আগের ব্লগে কথা বলেছি আরও কয়েকটি ডিজিটাল মার্কেটিং সাপোর্টেড ইমেইল সার্ভিস প্রভাইডিং কম্পানি নিয়ে তবে এখাতে ওগুলোতে একাউন্ট করা দেখাইনি। করণ ওগুলো মার্কেটিং ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। তাছারা এর ইউজারদের নিজিস্ব ডোমেইল অথোরিটি দেয় না।

আর তাই সাধারণ ক্ষেত্রে এগুলো ব্যবহার না করাই ভালো। তবে আপনি যুদি একজন ডিজিটাল মার্কেটার হয়ে থাকেন আর এমন সার্ভিস পেতে চান তবে বাংলাদেশী ডিজিটাল মার্কেটিং সার্ভিস প্রভাইডিং এজেন্সি ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন।

www.https://aonedigitalmarketing.com/

এখানে ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রায় সব ধরণের সার্ভিস প্রভাইড করা হয়।

Featured